May 21, 2022

ইসরাইলি হামলায় আহত প্রাণীদের সেবা করছে ফিলিস্তিনিরা

ইসরায়েলি হামলায় আহত প্রাণীদের সেবা করছে ফিলিস্তিনিরা
ফিলিস্তিনের প্রাণীকল্যাণ

সংগঠনগুলো ১১ দিনের হামাস-ইসরায়েল সংঘর্ষের সময় আহত গাজার কুকুর ও বিড়ালগুলোকে চিকিৎসা দিয়ে সুস্থ করার চেষ্টা করছে।
ইসরায়েলি হামলায় গাজায় অন্তত ২৫৩ জন ফিলিস্তিনি মারা যান যাদের মধ্যে অনেকগুলো শিশুও রয়েছে।

এছাড়া আহত হয়েছেন প্রায় ২ হাজার ফিলিস্তিনি। তবে মানুষের পাশাপাশি গাজার অনেক গৃহপালিত প্রাণিরও প্রাণহানি হয়েছে। আহত হয়েছে অনেক প্রাণি।

গাজার সুলালা সোসাইটি ফর অ্যানিমাল ট্রেইনিং অ্যান্ড কেয়ারিংয়ের স্বত্ত্বাধিকারী সাঈদ এল-আয়ের গাজার রাস্তায় ঘুরে ঘুরে বেওয়ারিশ কুকুর ও বিড়াল খুঁজে বের করছেন এবং সেগুলোকে চিকিৎসা, খাবার ও আশ্রয়ের ব্যবস্থা করছেন।

আয়ের বলেন, ‘আমরা এখনও যুদ্ধে আহত কুকুর বিড়ালের ব্যাপারে কল পাচ্ছি এবং এখনও চেষ্টা করছি ওদের কাছে পৌঁছে সাহায্য করতে।’

গত শুক্রবার যুদ্ধবিরতি কার্যকর হওয়ার পরপরই আয়ের তার প্রাণি আশ্রয়কেন্দ্রে ছুটে যান। গাজার জেইতুন শহরতলীর পৌরসভা কর্তৃপক্ষ প্রাণি আশ্রয়কেন্দ্রের জন্য একঘণ্ড জায়গা দিয়েছিল আয়েরকে।

তিনি বলেন, ‘আমি আশ্রয়কেন্দ্রের বাইরে কুকুরগুলোকে দেখি। ওরা ছিল বিষণ্ণ, ভীত আর আতঙ্কিত।’ আয়ের জানান, ইসরায়েলের বোমা হামলায় আশ্রয়কেন্দ্রের বাইরের বেড়া ছিন্নভিন্ন হয়ে গেছে।

আয়ের আরও বলেন, ‘আমি অবাক হয়ে দেখি যে একটি বানর মরে পড়ে আছে আর একটি ঘোড়া আহত হয়েছে, সেটিও কিছুক্ষণ পর মারা যায়। বোমার টুকরার আঘাতে কুকুরগুলো আহত হয়েছে। আমি এখনও ওদের চিকিৎসা দিচ্ছি।’

গাজার উত্তর দিকে ইসরায়েলি হামলায় গুঁড়িয়ে গেছে ওমর শাহিনের আস্তাবল। সেখানে তার চারটি ঘোড়ার তিনটিই আহত হয়েছে।

১১ দিনের এই সংঘর্ষে গাজায় যে পরিমাণ ভবন ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে, তা পুননির্মান করতে কয়েক বছর সময় লেগে যাবে। এতে খরচও হবে শত কোটি ডলারের বেশি।

Leave a Reply

Your email address will not be published.