ক্ষতিকর কন্টেন্ট থেকে কিশোর বয়সীদের দূরে রাখার চেষ্টায় ফেইসবুক

ক্ষতিকর কন্টেন্ট থেকে কিশোর বয়সীদের দূরে রাখার চেষ্টার অংশ হিসেবে নিজস্ব অ্যাপগুলোতে নতুন ফিচার আনবে শীর্ষ সামাজিক মাধ্যম ফেইসবুক।

ফেইসবুক ও ইনস্টাগ্রাম কীভাবে কিশোর বয়সীদের মানসিক স্বাস্থ্যে বিরূপ প্রভাব ফেলে তা খতিয়ে দেখছেন মার্কিন আইন প্রণেতারা। ফেইসবুকের সাবেক কর্মী ফ্রান্সেস হাউগেনের ফাঁস করা অভ্যন্তরীণ গবেষণা প্রতিবেদন ও নথিপত্রের জেরে ব্যাপক সমালোচনার মুখেও পড়েছে ফেইসবুক। এমন পরিস্থিতিতে নতুন এ খবর জানিয়েছেন প্রতিষ্ঠানটির বৈশ্বিক সম্পর্কবিষয়ক ভাইস প্রেসিডেন্ট নিক ক্লেগ।

কন্টেন্টের বিস্তৃতিতে ব্যবহৃত ফেইসবুক অ্যালগরিদমেও নিয়ন্ত্রকদের প্রবেশাধিকার দিতে আপত্তি নেই ক্লেগের। গোটা বিষয়টি নিয়ে ভাবতে রাজি তিনি।

তবে, জানুয়ারিতে যুক্তরাষ্ট্রের ক্যাপিটল হিলে হামলার ঘটনায় আক্রমণকারীদের বক্তব্য ছড়িয়ে দিতে ফেইসবুকের অ্যালগরিদম ভূমিকা রেখেছিল কি না, সে বিষয়ে কোনো প্রশ্নের উত্তর দিতে অস্বীকৃতি জানিয়েছেন ওই ফেইসবুক নির্বাহী।

ক্লেগের মতে, অ্যালগরিদমকে “যদি প্রয়োজন পড়ে, নীতিমালার মাধ্যমে অবশ্যই কাঠগড়ায় দাঁড় করানো উচিত, যাতে মানুষ মিলিয়ে দেখতে পারেন আমাদের সিস্টেম তাদের ব্যাপারে কী বলছে এবং আদতে কী হচ্ছে।”

৫ অক্টোবর সিনেটে সাক্ষ্য দিয়েছেন ফেইসবুকের সাবেক কর্মী ও তথ্য ফাঁসকারী ফ্রান্সেস হাউগেন। সেখানে তিনি তুলে ধরেছেন– কীভাবে প্রতিষ্ঠানটি মানুষকে স্ক্রলিংয়ের জালে আটকে রাখে, কিশোর বয়সীদের স্বাস্থ্যের উপর ক্ষতিকর প্রভাব ফেলে।

“আমরা এমন কিছু নিয়ে আসতে যাচ্ছি যা আমার মতে যথেষ্ট পার্থক্য তৈরি করতে পারবে। আমাদের সিস্টেম যেখানে দেখবে যে কিশোর বয়সীরা একই কন্টেন্ট বারবার দেখছে এবং ওই কন্টেন্ট হয়তো তাদের সুস্বাস্থ্যের অনকূলে নয়, সেখানে আমরা তাদের অন্য কন্টেন্ট দেখতে উদ্বুদ্ধ করবো।” – বলেছেন ক্লেগ।

বাড়তি হিসেবে “আমরা ‘টেক আ ব্রেক’ নামের নতুন কিছু আনছি, যেখানে আমরা কিশোর বয়সীদের ইনস্টাগ্রাম ব্যবহার থেকে বিরতি নিতে উৎসাহিত করবো।” – যোগ করেছেন তিনি।

রয়টার্সের প্রতিবেদন বলছে, ফেইসবুক যে সম্প্রতি ইনস্টাগ্রামের শিশু সংস্করণ ‘ইনস্টাগ্রাম কিডস’ তৈরির পরিকল্পনায় রাশ টেনেছে এবং কিশোর বয়সীদের উপর নজর রাখতে অভিভাবকদের জন্য নতুন ফিচার আনছে, সেকথাও বলেছেন ক্লেগ।

Leave a Reply

Your email address will not be published. Required fields are marked *